ভবিষ্যতের জন্য একটি সতর্কবাণী

এক যুবক হুজুর (আল্লাহ তাঁর হাতকে শক্তিশালী করুন) কে জিজ্ঞাসা করেছিলেন,‘পৃথিবী কি কখনও কভিড -১৯ পূর্ব স্বাভাবিক ’অবস্থায় ফিরে আসবে?’

হুজুর (আল্লাহ তাঁর হাতকে শক্তিশালী করুন) উত্তরে বললেন:
‘পরাক্রমশালী আল্লাহ ভাল জানেন ভবিষ্যতে কী হবে । এমনকি সবকিছু যদি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেও আসে তবু এটি স্পষ্ট যে করোনাভাইরাস মহামারীর পরে বিশ্বকে ভয়াবহ অর্থনৈতিক পরিণতি বহন করতে হবে। শারীরিক যুদ্ধ বা বড় বিরোধ না থাকলেও বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল হতে এখনও কয়েক বছর সময় লাগবে। তবে, আমরা ইতিহাস পর্যবেক্ষণ করে যা বুঝতে পারি যে যখন অর্থনৈতিক সমস্যা অনেক গভীরে হয়, তখন প্রায়শই তারা যুদ্ধের দিকে পরিচালিত করে না। বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতি বিচার করে দেখে মনে হচ্ছে যুদ্ধের পূর্বশর্তগুলি প্রকাশ পাচ্ছে।
যদি, কোরোনাভাইরাস মহামারীর পরে কোনও যুদ্ধ শুরু হয়, তবে বিশ্বের পরিস্থিতি আরও মারাত্মক হয়ে উঠবে এবং বিশ্বের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে ফিরে আসতে অনেক বছর সময় লাগবে। সুতরাং আমাদের অবশ্যই প্রার্থনা করতে হবে যে মহান আল্লাহ তায়ালা বিশ্বের মানুষ ও জাতিকে জ্ঞান ও প্রজ্ঞা দান করুন যাতে বস্তুবাদী আকাঙ্ক্ষায় জড়িয়ে পড়ার পরিবর্তে এবং একে অপরের অধিকার দখল করার পরিবর্তে বিশ্বের নেতৃবৃন্দ এবং জাতিসমূহ বুদ্ধিমান হয় ও শান্তি ও সম্প্রীতির জন্য প্রচেষ্টা করতে পারে। প্রত্যেকের লক্ষ্য হওয়া উচিত যে বিশ্ব আরও ঐক্কবদ্ধ হয় এবং পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে। যদি এই ধরনের প্রচেষ্টা না করা হয়, তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে অনেক বছর সময় লাগবে এবং খুব ভয়াবহ পরিস্থিতি উদ্ভাসিত হবে।
আমি আশঙ্কা করি যে এই করোনভাইরাস মহামারী শেষ হওয়ার পরে যুদ্ধ বা সংঘাতের সূত্রপাত হতে পারে এবং সবকিছু স্বাভাবিকতায় ফিরে আসার আগে এর ধ্বংসাত্মক প্রভাবগুলি বহু বছর ধরে স্থায়ী হতে পারে। সুতরাং, আমাদের অবশ্যই প্রার্থনা করতে হবে যে যুদ্ধগুলি যেন শুরু না হয় এবং বিশ্ব নেতারা সংবেদনশীলতার সাথে কাজ করেন যাতে বিশ্ব পরিস্থিতি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্থিতিশীল হয় এবং স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে পারে। এটি অর্জন করার জন্য মানবজাতীকে সর্বশক্তিমান আল্লাহর দিকে মনোনিবেশ করা প্রয়োজন। বিশ্ব যদি আল্লাহর দিকে না ফিরে যায় তবে তারা ভবিষ্যতে আরও মহামারী বা অন্যান্য বিপর্যয়কে শাস্তির হিসাবে দেখতে পাবে। সুতরাং, পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে না যতক্ষণ না মানবতা আল্লাহর সামনে মাথা নত করে এবং তাঁর সৃষ্টিসমূহের অধিকার এবং তাঁর অধিকারগুলি পূর্ণ করে না।
সুতরাং, আহমদি হিসাবে আমাদের অবশ্যই এ লক্ষ্যে পূর্বের চেয়ে বেশি প্রচেষ্টা করা উচিত এবং তাবলিগ [ইসলামের বাণী প্রচার করা] চালিয়ে যেতে হবে এবং বিশ্বকে বলতে হবে যে বিশ্বব্যাপী পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার জন্য একমাত্র সমাধান রয়েছে আল্লাহর দিকে ফিরে আসা এবং তাঁর সামনে সিজদা করুন এবং তাঁর সৃষ্টির অধিকার ও অধিকার পূরণ করুন।

%d bloggers like this: